Bangla Pdf Book Download

[🌹] অনীশ হুমায়ুন আহমেদ Pdf Download

হ্যালো প্রিয় বন্ধুরা ,আশা করি আপনারা সকলেই অনেক ভালো আছেন। আজকে আপনাদের জন্য আপনাদের পছন্দের বইটি নিয়ে হাজির হয়েছি ।পাঠকপ্রিয় বন্ধুদের জন্য রয়েছে একটি খুবই আকর্ষনীয় ও চমৎকার অনীশ বইটির সম্পূর্ণ রিভিউ ও [Pdf Download link]। তাই আপনারা আর দেরি না করেই বইটি অতি দ্রুত ডাউনলোড করে ফেলুন।

বইয়ের সংক্ষিপ্ত বিবরণঃ

বন্ধুরা,   অনীশ বইটি আমাদের সাইট হতে ডাউনলোড করুুুন।

বইয়ের ধরণ:  উপন্যাস

book অনীশ
writter  হুমায়ুন আহমেদ
Edition 1st Published, 2022
Number of Pages 150+
Country বাংলাদেশ (Bangladesh)
format PDF ডাউনলোড

বইয়ের সংক্ষিপ্ত রিভিউঃ

“কিছু-কিছু পুরুষ আছে, যারা রূপবতি সুন্দরী মেয়েদের অগ্রাহ্য করে একধরণের আনন্দ পায়। সচরাচর এরা নিঃসঙ্গ ধরনের পুরুষ হয়, এবং নারীসঙ্গের জন্যে তীব্র বাসনা বুকে পুষে রাখে।”

__হুমায়ুন আহমেদ এর এই বিখ্যাত উক্তিটি এই বই থেকেই নেওয়া। ‘অনীশ’ গল্পটি শুরু হয়েছে মিছির আলির অসুস্থতার বর্ননা দিয়ে।লিভারের জটিলতা এবং মাথায় তীব্র যন্ত্রনা নিয়ে হসপিটালে সুয়ে আছেন।কঠিন কঠিন ফিলোসোফির কথা ভাবছেন।তার ভাবনার ছন্দপতন ঘটালো রুপা। রুপা একটি সুদর্শন তরুণী। সিনেমা করেন,সিনেমার নায়িকা।এখন সে অপারেশনের রুগি। মিছির আলির সাথে নাটকীয় ভাবে পরিচয় হলো,যাকে বলে কাকতলীয় ঘটনা।মিছির আলি লোকটি একটি ভিন্নরকম চরিত্র।যাকে ভালোবাসা যায়না,ঘৃনা ও করা যায়না।তবে বিশ্বাস করা যায়।তার ভিতরে লজিকে ভরপুর।সবকিছু লজিক দিয়ে চিন্তা করতে ভালোবাসেন।তার দৃঢ়বিশ্বাস এই দুনিয়ায় লজিকের বাহিরে কিছু নেই।রুপার একটি গোপন গল্প আছে,যা সে শুধু নিজে জানে,আর কেউ না।এই গল্পটি কাউকে সে বলেনি,তবে মিছির আলি কে বলবে।কারন মিছির আলি চমৎকার জ্ঞানী একজন মানুষ।যে সবকিছু যুক্তি দিয়ে বুঝতে চেষ্টা করে। মিছির আলি হসপিটাল থেকে বায়ু পরিবর্তনের জন্য চলে গেলো ময়মনসিংহ। সাথে রূপার দেওয়া খাতা।রূপার গল্পটি ছিলো এরকম “প্রায় ছ’মাস বয়সেই তার বাবা মারা যায়।সে মায়ের কাছেই বড় হতে থাকে।তার মা যথেষ্ট পাগলা কিসিমের মানুষ।হরেক রকম পাগলামি সে মেয়ের সাথে করে।তবে মেয়েকে যথেষ্ট ভালোবাসে বলেই পাগলামি করে তার ভালোবাসা প্রকাশ করে।তবে মানুষ তো পাগলামি পছন্দ করে না।একসময় অসহনীয় হয়ে উঠে।রুপা বাড়ি থেকে পলায়ন করে।৫ দিন বান্ধবীর বাসায় থাকে।সে যেদিন ফিরে আসে,তার মা তাকে বিয়ে দিয়ে দেয় ইন্জেনিয়ার এক ছেলের সাথে।ছেলেটা যথেষ্ট ভালো এবং হাসিখুশি। রূপার মায়ের খুব পছন্দ। রূপার খুব পছন্দ অপছন্দ উল্লেখ নেই।তবে সে সংসারী বলা চলে।যখন তার বিয়ের বয়স ৫ কি ৬ মাস।তার গর্বে একটি সন্তান আসে।সমস্যা বাঁধে এই সন্তান নিয়ে।তার স্বামীর ধারনা এই সন্তান তার নয়,রূপা ৫ দিন অন্যকারো সাথে ছিলো।রূপা বুঝাতে ব্যার্থ হয়,সে তার বান্ধবীর কাছেই ছিলো।তার স্বামী এবং মা বিশ্বাস, অবিশ্বাস এর মাঝে দোলতে থাকে।এমন সময় রুপা সন্তান জন্ম দেয়।সে মা হয়,তবে মৃত সন্তান হয়।তার বাড়ির পাশেই কবর দেওয়া হয়।সে সন্তানের জন্য কান্নাকাটি করেন,তবে তার মা মৃত বাচ্চাটির প্রতি কোন প্রার্থনা করেন না।কবরের পাশে যান না।এতে রূপার খুব দুঃখ হয়।”

আরও দেখুন:- তালিমুস সুন্নাহ pdf download

মিছির আলি এই গল্প পড়েন এবং মাঝ নদীতে বসে বসে সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করেন।তিনি অর্ধেক গল্প পড়েই বুঝে যান।রূপা মৃত সন্তান জন্মদেয়নি।তাকে মৃত জানানো হয়েছে।কারন-

–বিয়েটা টিকিয়ে রাখতে হলে,সন্তান টি মৃত হতে হবে।এটাই রূপার স্বামীর শর্ত।
–সন্তান মৃত হলে, রুপার মা কবরের পাশে কাঁদতো,তবে ঘরে কেনো কাঁদে?নিশ্চই এর ভিতরে সূক্ষ একটি অনুভূতি কাজ করে।
-মিছির আলি আরো কিছু সূত্র পেয়ে যান।এবং সমস্যাটির সমাধান করেন।

এই গল্পটি মিছির আলি সিরিজের মধ্যে অনেকটা সাধারন এবং সাদামাটা গল্প বলা চলে।সমাধানটি খুব বেশি জটিল নয়। তবে হুমায়ুন আহমেদ এর লেখার ম্যাজিকে খুব সাধারণ কিছুও অসাধারণ হয়ে উঠে।আমার পঠিত এটি চমৎকার একটি উপন্যাস বলা চলে।

 আরও দেখুন:- মুঘল সাম্রাজ্যের ইতিহাস বই pdf download

আধুনিক প্রকাশনী বই PDF Download

অনীশ  PDF Book Download👎‎ link👎

pdf link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button